Photobazar24
শুক্রবার / ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৭

পায়ে লিখে এস এস সি পরীক্ষায় পাশ করলো লালমনিরহাটের প্রতিবন্ধি আরিফা

আপডেট: 2017-03-21 20:22:49
পায়ে লিখে এস এস সি পরীক্ষায় পাশ করলো লালমনিরহাটের প্রতিবন্ধি আরিফা

দুটি হাত নেই এর পরেও পায়ে লিখে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৪.১১ অর্জন করে পাশ করেছে লালমনিরহাটের আরিফা। সে লালমনিরহাট সদর উপজেলার ফুলগাছ উচ্চবিদ্যালয়ের মানবিক শাখা থেকে এবারে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করেছিল। সে সদর উপজেলার খোড়ারপুল শাহীটারী গ্রামের দিনমজুর আব্দুল আলীর ছোট মেয়ে। প্রতিবন্ধি আরিফা বলেন, আশা ছিল জিপিএ-৫ পাবে। কিন্তু এই ফলাফল পেয়েও সে থেমে থাকতে চায়না। আগামী এইচএসসি পরীক্ষায় যে ভালো ফলাফল করতে পারে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা জানিয়ে দেশবাসির দোয়া কামনা করেছেন। তার বাবা দিনমজুর আব্দুল আলী খুবই গরীব। দিনমজুরী দিয়ে তার চলে ৭ সদস্যর সংসার। তার মা তাকে গোসল থেকে কাপড় পড়ানো ও স্কুলের বই সাজিয়ে দিতো। বুধবার পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর প্রতিবন্ধি আরিফা কান্নাজনিত কন্ঠে বলেন, কি করে দিনমজুর বাবার আয়ের উৎস দিয়ে এইচএসসি’তে ভর্তি ও লেখাপড়া করবে। তারপরেও সে লেখা পড়া শিখে মানুষের সেবায় নিয়োজিত হতে চায়। পিএসসি ও জেএসসি এভাবেই পা দিয়ে লিখে গন্ডি পেরিয়ে এবারে আরো একধাপ এগিয়ে গেলো প্রতিবন্ধি আরিফা। সে জানায় শারীরিক প্রতিবন্ধি তার যতো বাঁধা তার চেয়ে বড় বাঁধা তার কাছে দারিদ্র। সে শহরের উত্তর সাপটানা ব্রাক স্কুল থেকে পাশ করে ফুলগাছ উচ্চবিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিল। ওই বিদ্যালয় থেকে জেএসসি পরীক্ষায় সে পায়ে লিখে জিপিএ-৪.৪ পায়। প্রধান শিক্ষক শাহজাহান বলেন, প্রতিবন্ধি হয়ে আজ আরিফা পায়ে লিখে যতদুর এগিয়েছে দোয়া করি সে যেন দারিদ্রতার কারনে পিছিয়ে না পরে। সে যেন একদিন তার বাস্তব জীবনে দাঁড়াতে পারে। আরিফার বাবা আব্দুল আলী ও মা মমতাজ বেগম জানায়, পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে আরিফা সবার ছোট। সে আজ আমাদের মুখে হাসি ফুটিয়েছে। আশাকরি সে একদিন আমাদের দারিদ্রকে জয় করবে।



সর্বশেষ খবর